ঘোড়াঘাট পৌরসভার ঐতিহাসিক দূর্গের মসজিদটি যেন দেখার কেউ নেইঘোড়াঘাট পৌরসভার ঐতিহাসিক দূর্গের মসজিদটি যেন দেখার কেউ নেই – বিডি দর্পণ ২৪.কম
শনিবার, ৩১ অক্টোবর ২০২০, ০৭:৩১ অপরাহ্ন

ঘোড়াঘাট পৌরসভার ঐতিহাসিক দূর্গের মসজিদটি যেন দেখার কেউ নেই

Reporter Name/৪৮৯Time View
Update :বৃহস্পতিবার, ২৪ সেপ্টেম্বর, ২০২০

দিনাজপুর ঘোড়াঘাট উপজেলার পৌরসভার ১নং ওয়ার্ডের দিনাজপুর গোবিন্দগঞ্জ আঞ্চলিক মহাসড়কের উপর অবস্থিত ঐতিহাসিক দূর্গের মসজিদটি যেন দেখার কেউ নেই।

সরোজমিনে গিয়ে দেখাযায়, ঐতিহাসিক এই দূর্গের মসজিদটি এমনিতেই কালের বিবর্তনে ধ্বংস স্তুপে পরিণত হয়েছে তার উপর আবার অযত্নে অবহেলায় এখন তা নিঃচিহ্ন হওয়া উপক্রম।এ যেন মরার উপর খরার ঘা।বিভিন্ন লতাগুল্মে ছেয়ে নিয়েছে সম্পূর্ণ দূর্গ, পা ফেলার মত কোন জায়গা নেই! সাপ, পোকা মাকড়ের আভাস স্থলে পরিণত হয়েছে দূর্গটি।কাছে থেকেও বোঝার উপায় নেই যে এটি একটি কালের সাক্ষী ঐতিহাসিক দূর্গ।যা আমাদের ঘোড়াঘাট তথা দিনাজপুর জেলাকে সমৃদ্ধি করার ক্ষেত্রে সহায়ক ভূমিকা পালন করে।

স্থানীয় এক বৃদ্ধা মহিলা বলেন, অনেকে আসে এখানে, এসে জিজ্ঞাসা করে দূর্গটি কোথায় এবং যখন দূর্গ টি দেখিয়ে দেওয়া হয় তখন তারা হতবাক হয়ে যায় আর দুঃখ প্রকাশ করে বলে এই রকম একটা ঐতিহাসিক দূর্গের এই অবস্থা!

দূর্গের ইতিহাস এবং ঐতিহ্য রক্ষার্থে অনতিবিলম্ব এই দূর্গের সংস্কার এবং পরিচর্যা করা উচিত বলে সচেতন এলাকাবাসী দিনাজপুর -৬ আসনের এমপি জনাব শিবলী সাদিক, সংশ্লিষ্ট কর্তিপক্ষ এবং মেয়র মহাদয়ের আশু হস্তক্ষেপ কামনা করেন এবং বলেন দূর্গ টি সংস্কার করলে দূর দূরান্ত থেকে অনেক পর্যটক যেমন আসবে তেমনি ভাবে এটির ঐতিহ্য রক্ষাও হবে।

উল্লেখ্য, শিলালিপি অনুসারে সরকার ঘোড়াঘাটের জনৈক মুগল ফৌজদার জয়নাল আবেদীন ১৭৪০-৪১ সালে মসজিদটি নির্মাণ করেন বলে জানাযায়।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

More News Of This Category

Prayer Time Table

  • ফজর
  • যোহর
  • আছর
  • মাগরিব
  • এশা
  • সূর্যোদয়
  • ৪:৫৫ পূর্বাহ্ণ
  • ১১:৫৩ পূর্বাহ্ণ
  • ৬:০০ পূর্বাহ্ণ
  • ৬:০০ পূর্বাহ্ণ
  • ৬:০০ পূর্বাহ্ণ
  • ৬:০৭ পূর্বাহ্ণ

আর্কাইভ