বৃহস্পতিবার, ২৬ নভেম্বর ২০২০, ০৪:৫৩ পূর্বাহ্ন

শিরোনাম :
নেতা হলে এমন নেতা হওয়ায় উচিত ঘোড়াঘাটে ১০ বছরের মাদ্রাসা ছাত্র হৃদয় কে খুজে পাওয়া যাচ্ছে না একাত্তর ইন্টিগ্রেশন ব্রয়লার খামারীদের প্রশিক্ষন শেষে পুরস্কার বিতরণ কুড়িগ্রামের ভূরুঙ্গামারী উপজেলায় বিশ্ব এন্টি মাইক্রোবিয়াল সচেতনতা সপ্তাহ পালিত পলাশবাড়ী পৌরসভা নির্বাচনে স্বতন্ত্র মেয়র প্রার্থী বিপ্লবের সাংবাদিকদের সাথে মতবিনিময় দুর্গাপুর ইয়াবা সেবনের দায়ে পৌর যুবদল ও সৈনিক লীগের সভাপতি গ্রেপ্তার ধামইরহাটে মুজিববর্ষে ১৫০ গৃহহীন পাচ্ছে নতুন ঘর, দেখছে নতুন করে বাঁচার স্বপ্ন খুলনায় নারী কাস্টমস কর্মকর্তার দুদকের মামলায় ১৩ বছর জেল কুড়িগ্রামে শ্রী রামকৃষ্ণ আশ্রম উদ্বোধন কুড়িগ্রামের উলিপুর উপজেলায় বাসের ধাক্কায় ১ শিশুর মৃত্যু নড়াইলে কিশোরীদের অংশগ্রহণে নবান্ন উৎসব পালিত গোদাগাড়ীতে গোদ রোগের উপর সামাজিক উদ্বুদ্ধকরণ সভা ঘোড়াঘাটে ৫ হাজার টাকা জরিমানা গুনতে হলো চিকিৎসকে খুলনা থেকে প্রকাশিত একটি দৈনিক পত্রিকায় প্রকাশিত সংবাদে প্রতিবাদ নোয়াখালীতে ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে হতদরিদ্রের ৩৫লক্ষ টাকা আত্মসাৎ’র অভিযোগ

ঘোড়াঘাট থানার ওসির তৎপড়তায় অল্পসময়ে অজ্ঞাত মহিলার হত্যাকারি আটক

মনোয়ার বাবু(ঘোড়াঘাট) দিনাজপুর প্রতিনিধিঃ
  • আপডেট সময় শুক্রবার ৯ অক্টোবর, ২০২০
  • ৪২৮ বার পঠিত

দিনাজপুর ঘোড়াঘাটে অজ্ঞাত মহিলার মৃত দেহ উদ্ধারের পর সার্বিক বিষয়ে প্রেস ব্রিফিং করলেন ওসি আজিম উদ্দীন।

অদ্য ৯ অক্টোবর(শুক্রবার)বেলা ১১:০০ ঘটিকায় অফিসার ইনচার্জ আজিম উদ্দীন এক প্রেস ব্রিফিং এর মাধ্যমে সাংবাদিককে জানান,
অতি অল্প সময়ে দিন রাত এক করে এই মার্ডারের সার্বিক তথ্যসহ আসামি কে ধরতে সক্ষম হই।

তিনি জানান, হত্যাকারি আসামি নীলফামারী, কিশোরগঞ্জ, কালিকাপুরের মোঃ নিজাম উদ্দিন এর ছেলে মোঃ আঃ সালাম(২৭) এবং নিহত মহিলা জয়পুরহাট, আক্কেলপুর,আবাদপুরের মৃত মিরাজ শিকদারের মেয়ে পেয়ারা বেগম(৩৭)।

ঘটনা সূত্রে জানাযায়, আনুমানিক বিশ বছর পূর্বে মৃত পেয়ারা বেগমের আবাদপুরে বিয়ে হয়। গত চার বছর পূর্বে তিন সন্তান রেখে তার প্রথম স্বামী মারা গেলে মোবাইলের মাধ্যমে আঃ সালামের সাথে তার প্রেমের সম্পর্ক গড়ে উঠে এবং সাত মাস পূর্বে সকলের অসম্মতিতে তারা বিবাহ বন্ধনে আবদ্ধ হয়ে দিনাজপুর ফুলবাড়িতে বাসা ভাড়া করে বসবাস শুরু করে। এরই এক পর্যায়ে নিহত পেয়ারা বেগম আঃ সালামকে তার মা বাবা সহ নিজ বাড়ির সাথে সব সম্পর্ক ছিন্ন করার জন্য বারবার চাপপ্রয়োগ করতে থাকে।দিনের পর দিন এমন চাপপ্রয়োগে হত্যা কারি আঃ সালাম পেয়ারা বেগমকে হত্যা করার পরিকল্পনা করে। এই পরিকল্পনা অনুযায়ী তাকে নিজ মটর সাইকেলে করে ঢাকায় নিয়ে যাওয়ার ছক আকেঁ।হত্যার আগের দিন অর্থাৎ ৩ অক্টোবর আঃ সালাম পেয়ারা বেগম কে নিয়ে ঢাকার উদ্দেশ্যে রওনা হয়ে প্রথম গাইবান্ধা পলাশ বাড়িতে যেয়ে সেখানে দু’জনে চা খেয়ে আবার ঢাকার উদ্দেশ্যে রওনা হয় এবং রাত আনুমানিক ১১:০০টায় মোকামতলায় রাতের খাবার খেয়ে ঢাকায় না যেয়ে উল্টো পথে ঘোড়াঘাটে হত্যার জায়গায় রুটি খাওয়া ছলনায় মোটর সাইকেল দাড় করায় , তখনোও পেয়ারা বেগম কিছু বুঝে উঠতে পারিনি।এক পর্যায়ে হত্যাকারি আঃ সালাম পেয়ারা বেগম কে বলে আমি আমার বাবা-মা সহ বাড়ির সাথে যোগাযোগে তুমি কোন বাধা দিওনা আর যদি দাও তাহলে তুমি তোমার ওরনা দিয়ে আমার গলায় ফাস দিয়ে মেরে ফেল।তখন পেয়ারা বেগম বলে আমি তোমাকে যোগাযোগ করতে দিব না আর তুমি কেন মরবে এই ভাবে ওরনা গলায় ফাস দিয়ে তুমি আমাকে মেরে ফেলো আর এই সুযোগের অপেক্ষা করছিল হত্যা কারি আঃ সালাম। কথামত কাজ, দেখানোর ছল করে ৪ অক্টোবর রাত আনুমানিক ২:০০ টার সময় ওরনা পেচিয়ে হত্যা নিশ্চিত করে হত্যাকারি আঃ সালাম এবং রাস্তার পাশে ঝোপের মধ্যে ফেলে রেখে পালিয়ে যায়।

ঘোড়াঘাট থানা অফিসার ইনচার্জ আজিম উদ্দীন জানান, দিনাজপুর জেলার সুযোগ্য পুলিশ সুপার জনাব মোঃ আনোয়ার হোসেন বিপিএম পিপিএম বার সাহেবের সার্বিক সহযোগীতায় দিন রাত নাওয়া খাওয়া ছেড়ে এই মার্ডারের মূল আসামি গত ৭ অক্টোবর নীলফামারী, কিশোরগঞ্জ, কালিকাপুর থেকে আটক করে রহস্য উদঘাটন করতে সক্ষম হই।আসামি নিজে দোষ স্বীকার করে ১৬৪ ধারায় জবানবন্ধী দিয়েছে এবং এর আগেও আরও দুই টি বিয়ে করেছে, তাদের ঘরে তার সন্তান আছে বলে আসামি নিজে জানিয়েছেন। আসামিকে গত ৮ অক্টোবর বিজ্ঞ আদালতে সোপর্দ করা হয়েছে এবং ঘটনা সংঘটনের কাজে ব্যবহৃত মটর সাইকেল, মোবাইল ফোন জব্দ করেছেন বলেও নিশ্চিত করছেন।এসময় থানা তদন্ত অফিসার মমিনুল ইসলাম এবং মামলা তদন্তে দ্বায়িত্ব প্রাপ্ত এসআই খুরশিদ আলমও উপস্থিত ছিলেন।

এদিকে, গত ৫ অক্টোবর নিহত মহিলার বড় ভাই মোঃ মুনছুর নিজে বাদী হয়ে অভিযোগের ভিত্তিতে একটি হত্যা মামলা রুজু করেন।

উল্লেখ্য, গত ৪ অক্টোবর (রবিবার) সকালে ১০:৩০ ঘটিকায় হিলি ঘোড়াঘাট আঞ্চলিক সড়কে সুজা মসজিদ হতে পূর্ব দিকে ৪ নং ইউনিয়নের ৪নং ওয়ার্ডের চোরগাছা মৌজায় রাস্তার ধারে গলায় ওড়না পেচানো অবস্থায় একটি অজ্ঞাত মহিলার মৃত দেহ উদ্ধার করে থানা পুলিশ।

নিউজটি শেয়ার করুন


এ জাতীয় আরো খবর..