রবিবার, ২৯ নভেম্বর ২০২০, ০৫:০৪ অপরাহ্ন

শিরোনাম :
নড়াইলে কৃষকদের মাঝে বিনামূল্যে ধান বীজ বিতরণ সাপাহারে মানবিক বাংলাদেশ এর বার্ষিক সম্মেলনের শুভ উদ্বোধন সাপাহারে বীর মুক্তযোদ্ধার রাষ্ট্রীয় মর্যাদায় দাফন চকরিয়ায় জমি বিরোধে ছাত্রলীগ নেতা খুন:আটক-১ গভীর রাতে শীতার্তদের গায়ে কম্বল জড়িয়ে দিলেন ইউএনও ঘোড়াঘাটে বর্গা চাষি জুয়েলের লক্ষাধিক টাকার লাউ গাছের ক্ষতি সাধন খাগড়াছড়িতে গ্রাম ডাক্তারদের নিয়ে ব্র্যাক এর ম‍্যালেরিয়া নির্মূল ওরিয়েন্টেশন সাংবাদিক তাজ ফারাজুল ইসলাম চৌধুরী রচিত “যুগল গল্প”- বইয়ের মোড়ক উন্মোচন রাজশাহীতে একটি ঘরে আটক থাকা এক যুবকের মরদেহ উদ্ধার নড়াইল-যশোর সড়কে ট্রাকের ধাক্কায় কাঁচামাল ব্যবসায়ী নিহত কুড়িগ্রাম সদর থানা পুলিশ গাজাসহ আটক করেছে ২মাদক ব্যবসায়ীকে ঘোড়াঘাটে নাবিল পরিবহনের গাইড এবং হেলপার ৫৮ বোতল ফেনসিডিল সহ আটক বাংলাদেশ রেড ক্রিসেন্ট সোসাইটির কোভিড-১৯ এ ক্ষতিগ্রস্থ অসহায়-দুস্থের মাঝে খাদ্যসামগ্রী ও হাইজিন কিট বিতরণ উলিপুর উপজেলায় বেতন বৈষম্য দাবিতে কর্মবিরতি পালিত কুড়িগ্রামের ভূরুঙ্গামারীতে ৫ বছরের শিশুকে ধর্ষণ

খাগড়াছড়ির মাটিরাঙ্গা থানায় ট্রিপল সেভেন ব্রীক ফিল্ড জবরদখলের অভিযোগ

আল মামুন পার্বত্যাঞ্চল প্রতিনিধিঃ
  • আপডেট সময় বুধবার ১৮ নভেম্বর, ২০২০
  • ৪৩ বার পঠিত

খাগড়াছড়ি সদরের গন্জপাড়ার এরশাদের বিরুদ্ধে মাটিরাঙ্গায় ট্রিপল সেভেন ব্রিকফিল্ড জবর দখলের অভিযোগ উঠেছে।

বৃহস্পতিবার(১২নভেম্বর) মাটিরাঙ্গা থানায় এ সংক্রান্ত একটি অভিযোগ দায়ের করেছে ব্রিকফিল্ড মালিক ছানাহ উল্লাহ।

অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, প্রতিবছর এক লক্ষ পঞ্চাশ হাজার টাকা চুক্তিতে ভুমি ভাড়া প্রদানকারীদের প্রতিনিধি(প্রবাসী) মোঃ সামছুল হক এর মধ্যস্থতায় মাটিরাঙ্গার নতুন পাড়ায় ট্রিপল সেভেন নামে একটি ব্রীক ফিল্ড ব্যবসা পরিচালনা করে আসছিলেন খাগড়াছড়ি সদরের মো: ছানাহ উল্লাহ।

বিগত ৩০জুন’২০ ওই ভাড়াটিয়া (ছানাহ উল্লাহ‘র) ব্রীক ফিল্ড ব্যবসা পরিচালনার ১ম চুক্তিনামার মেয়াদ ৪বছর অতিক্রম করেছে।
এরপর দ্বিতীয় মেয়াদে ব্রীক ফিল্ড পরিচালনার জন্য মোঃ ছানাহ উল্লাহ ভাড়াটিয়া চুক্তিনামা সম্পাদনের জন্য ভুমি মালিকদ্বয়ের চাচা আমিন মিয়া, স্থানীয় মুরববী আবু সেক্রেটারী, স্থানীয় কাউন্সিলর ছাড়াও ভুমির অপরাপর মালিকদের অবগতি সাপেক্ষে ১ম মেয়াদে ভাড়া নেয়ার সমন্বয়ক ও ভাড়া প্রদানকারীদের প্রতিনিধি (প্রবাসী)মোঃ সামছুল হক এর নিকট ফোনে প্রস্তাব করলে ভুমির মালিকগনের সাথে পরামর্শের পর দ্বিতীয় মেয়াদে ভুমির ভাড়ার বিষয়ে ৪লক্ষ টাকা প্রতি বছরের বিপরীতে দিতে হবে বলে মৌখিকভাবে নতুন চুক্তিনামা সম্পাদন করার সিদ্ধান্ত জানান।

এমন সময় হঠাৎ মামলা সংক্রান্ত কারণে ট্রিপল সেভেন ব্রীক ফিল্ড এর মালিক মোঃ ছানাহ উল্লাহ কারাগারে থাকাকালিন কৌশলে ভুমি মালিক ওয়ারিশ মমিনের নামে ৩বছরের মেয়াদে নতুন আরো একটি চুক্তিনামা সম্পাদন করে ভুমি মালিকগণ।

পরবর্তীতে ছানাহ উল্লাহ কারাগার থেকে বের হয়ে স্থানীয় কাউন্সিলরের মাধ্যমে ভুমি মালিক মমিন গং‘দের সাথে পুনরায় চুক্তিনামার বিষয়ে আলোচনা করতে চাইলে ভুমি মালিক পক্ষ তার কথায় কর্নপাত করেনি।

ট্রিপল সেভেন ব্রীক ফিল্ড এর মালিক মোঃ ছানাহ উল্লাহ বলেন, এই ভুমিতে আমি কোটি টাকা মূলধন বিনিয়োগ করেছি। বর্তমানে প্রায় ৬০লক্ষ টাকা বিনিয়োগ রয়েছে। অনেকের সাথে আমার লেনদেনও রয়েছে। এমতাবস্থায় মানবিক দিক বিবেচনা করে তাকে আগামী ২বছরের জন্য চুক্তিনামা সম্পাদনের অনুরোধ জানালে ভুমির মালিকগন বা ওয়ারিশগন বলেন আমরা মমিনকে ভুমিটি ৩বছরের জন্য চুক্তিনামা সম্পাদন করেছি।

তখন মোঃ ছানাহ উল্লাহ বিষয়টির ন্যায় বিচার প্রাপ্তির জন্য দ্বারস্থ হলে, মাটিরাঙ্গার পৌর মেয়র, জনপ্রতিনিধি, গন্যমান্য ব্যক্তিবর্গ ও ভুমি মালিকগন বা ওয়ারিশ গনের সমন্বয়ে বৈঠক বসে উপস্থিত ব্যক্তিবর্গের সম্মুখে আগামী ২বছর পর্যন্ত ট্রিপল সেভেন ব্রীক ফিল্ড এর মালিক মোঃ ছানাহ উল্লাহ তার ব্রীক ফিল্ড এই ভুমিতে পরিচালনা করবেন বলে সিদ্ধান্ত হয় ।

পরবর্তীতে মোঃ ছানাহ উল্লাহ ফিল্ডের কাজ করতে চাইলে ভুমি মালিকগণ পৌরসভার রায়কে উপেক্ষা করে কাজ করতে দেবে, দিচ্ছি, আজ দেবো, কাল দেবো বলে শুধু সময় ক্ষেপন করছেন। এভাবে সময় ক্ষ্যাপন করায় একপর্যায়ে ছানাহ উল্লাহ স্থানীয় কাউন্সিলরের নিকট গেলে তিনি স্থানীয় মুরববী ও ভুমির মালিকদের সাথে বসে সিদ্ধান্ত নিতে বলেন।

পরে কাউন্সিলরের পরামর্শে ভুমি মালিকগনের চাচা আমিন এর বাসায় বসে ৪লক্ষ টাকা বুঝিয়া পাওয়ার শর্তজুড়ে দিয়ে চুক্তিনামা সম্পাদনে রাজি হয়।

এসময় অঙ্গীকার গ্রহন পুর্বক ১বছরের চুক্তিনামা সম্পাদন হলে ছানাহ উল্লাহ ২বছরের জন্য আবেদন করেন।

ট্রিপল সেভেন ব্রীক ফিল্ড এর মালিক মোঃ ছানাহ উল্লাহ অর্থনৈতিকভাবে সমস্যায় থাকায় টাকার যোগানদারকে ব্রীক ফিল্ডের অর্ধেক বা ৫০% শেয়ারদার(পার্টনার) করে নেবেন মর্মে খাগড়াছড়ি গোলাবাড়ী ইউনিয়নের ২নং ওয়ার্ড গঞ্জপাড়ার বাসিন্দা মহরম আলীর ছেলে মোঃ এরশাদ আলীকে প্রস্তাব করিলে তিনি রাজি হন। সেখানে বলা ছিল ফিল্ডে যত মুলধন বা জিনিসপত্র আছে তার সবই আমার, তবে ফিল্ড পরিচালনার জন্য যত টাকার প্রয়োজন পরবে তা অর্ধেক শেয়ারদার মো: এরশাদ মিয়া চালিয়ে নেবেন। আর ব্রীক ফিল্ড পরিচালনা করবেন ট্রিপল সেভেন ব্রীক ফিল্ড এর মালিক মোঃ ছানাহ উল্লাহ।

পরবর্তীতে মোঃ ছানাহ উল্লাহ ব্রীক ফিল্ডে গেলে সেখানে আগে থেকে অবস্থানরত ভুমি মালিকদের মধ্যে মমিন প্রকাশ গাছ ব্যবসায়ী মমিন, ওমর আলী (ফিল্ডের চা দোকানি) ও অর্ধেক সেয়ারদার মোঃ এরশাদ মিয়ার উপস্থিতিতে ট্রিপল সেভেন ব্রীক ফিল্ড এর মালিক মোঃ ছানাহ উল্লাহ‘কে ইট নিয়ে মারার জন্য তেড়ে আসেন। এক পর্যায়ে ওমর আলী দড়ি দিয়ে বাঁধার চেষ্টা করেন। তাৎক্ষনিক শেয়ারদার মোঃ এরশাদ মিয়া ভুমি মালিকদের সাথে ঐক্যবদ্ধ হয়ে জোর পুর্বক ট্রিপল সেভেন ব্রীক ফিল্ড এর মালিক মোঃ ছানাহ উল্লাহ’কে ঘরে আটকে রাখেন। মৃত্যুর ভয় দেখিয়ে এরশাদ মিয়া চুক্তিনামা ও হিসাবের কাগজ ছিনিয়ে নিয়ে নাদাবী নামা দিতে বলেন।

পরে শ্রমিকরা এসে তাকে (ট্রিপল সেভেন ব্রীক ফিল্ড এর মালিক মোঃ ছানাহ উল্লাহ)‘কে উদ্ধার করেন।

এ ফাঁকে প্রশাসনকে না জানিয়ে সম্পুর্ন অবৈধভাবে ব্রীক ফিল্ডের নাম ট্রিপল সেভেন পরিবর্তে এ-ডাবল সেভেন নামে নাম পরিবর্তন করেন বিশ্বাস ভঙ্গকারী অর্ধেক শেয়ারদার মোঃ এরশাদ মিয়া।

এ বিষয়ে অভিযুক্ত জবর দখলদার এরশাদ মিয়া মুঠো ফোনে সাংবাদিকদের জানান, আমি ১৭লক্ষ টাকা দিয়ে ইট ভাটাটি কিনেছি। বর্তমানে প্রতিষ্ঠানটির ক্রয়সুত্রে মালিক আমি। আমার বিরুদ্ধে আনিত অভিযোগ ভিত্তিহীন।

তবে ট্রিপল সেভেন ব্রীক ফিল্ড এর মালিক মোঃ ছানাহ উল্লাহর দাবী এরশাদকে শুধুমাত্র ৫০% শেয়ারদার হিসেবে নিয়েছি। সর্বসাকুল্যে আমার স্ত্রীর মাধ্যমে নগদে ৩লক্ষ্য টাকা গ্রহন করেছি। ৩লক্ষ টাকা দিয়ে কেউ কোটি টাকার ব্রীক ফিল্ডের ক্রয়সুত্রে মালিক হতে পারেন কি না সেই প্রশ্ন তুলে বলেন, এটা সুস্পস্ট প্রতারণা ছাড়া আর কিছুই নয়।

এ বিষয়ে মাটিরাঙ্গা থানার অফিসার ইনচার্জ(ওসি) মোহাম্মদ আলী অভিযোগপত্র পাওয়ার বিষয়টি স্বীকার করে বলেন, উভয় পক্ষ যদি এগিয়ে আসে তাহলে সমাধান সম্ভব হতে পারে।

নিউজটি শেয়ার করুন


এ জাতীয় আরো খবর..