শনিবার, ০৫ ডিসেম্বর ২০২০, ১১:৩০ পূর্বাহ্ন

শিরোনাম :
দীঘিনালায় বিরল রোগ আক্রান্ত ১০বছরের শিশু আরিফ বাঁচতে চায় দিনাজপুরে এন্টি টেররিজম ইউনিট কর্তৃক জঙ্গী সংগঠন আল্লাহর দলের আঞ্চলিক প্রধান আটক পলাশবাড়ী পৌরসভা নির্বাচন সুষ্ঠু হবে-নির্বাচন কমিশনার বেগম কবিতা খানম খুলনা মহানগরীর শিরোমনি মধ্যপাড়া এলাকায় সেনা সদস্য আলামীন শেখের পুরুষাঙ্গ কেটে দিয়েছেন তার স্ত্রী কুড়িগ্রামের রাজার হাটে হিরোইন ও ইয়াবাসহ ২ যুবক আটক সুন্দর পৃথিবী ছেড়ে একদিন চলে যেতে হবে…” বিজয় সরকারের ৩৫তম মৃত্যুবার্ষিকী আজ (৪ ডিসেম্বর) পলাশবাড়ী প্রেসক্লাবের নব-নির্বাচিত কমিটির দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত গোবিন্দগঞ্জে চা দোকানীর গলাকাটা লাশ উদ্ধার মাদক কারবারিদের বাড়ির সামনে ছবি টাঙ্গিয়ে দেওয়া হবে ভোটারের মন জয় করতে যাদু কুড়িগ্রাম পৌর নির্বাচনে মেয়র পদপ্রার্থীদের মধ্যে যাচাই-বাছাইয়ে ৫জনের মনোনয়নপত্র বৈধ ঘোষণা কুড়িগ্রামের ফুলবাড়ী উপজেলায় ভ্রাম্যমান আদালতের নির্দেশে মাদক সেবনের অপরাধে জেল ও জরিমানা খুলনা মহানগরী সহ ও খুলনা জেলার নয়টি উপজেলায় একযোগে ১৬টি ভ্রাম্যমান আদালতের অভিযান শ্রদ্ধা ও ভালবাসায় সমাহিত হলেন জনপ্রিয় শিক্ষক ও রাজনৈতিক নেতা দেওয়ান হালিমুজ্জামান ধামইরহাটে সড়ক ও জনপদের কাছে জনগণের অসন্তোষ-ক্ষোভ প্রকাশ

মাদারীপুর সদর থানার ভেতর ডেকে নিয়ে এক ব্যবসায়ীকে নির্যাতনের অভিযোগ

মোঃ আমানুল্লাহ ফকির মাদারীপুর জেলা প্রতিনিধিঃ
  • আপডেট সময় বৃহস্পতিবার ১৯ নভেম্বর, ২০২০
  • ৩৯ বার পঠিত

মাদারীপুরে থানার ভেতর জিজ্ঞাসাবাদের জন্য ডেকে নিয়ে এক সাইকেল ব্যবসায়ীকে পিটিয়ে আহত করার অভিযোগ উঠেছে।

আজ বৃহস্পতিবার (নভেম্বর-১৯) বেলা সাড়ে ১১টার দিকে সদর মডেল থানার ভেতর অবস্থিত জিজ্ঞাসাবাদ কক্ষে এ ঘটনা ঘটে। পরে ওই ব্যবসায়ীকে চিকিৎসা দেয়া হয়।

পুলিশ ও হাসপাতাল সূত্র জানায়, সকালে পারিবারিক একটি বিষয় নিয়ে সদর উপজেলার মস্তফাপুর থেকে সাইকেল ব্যবসায়ী বজলু খানকে সদর মডেল থানায় ডেকে নিয়ে যায় প্রতিবেশী রাজবাড়ীর হাইওয়ে পুলিশের উপ-পরিদর্শক (এসআই) রাজ্জাক খান।

পরে জিজ্ঞাসাবাদের নামে ওই ব্যবসায়ীকে থানার ভেতরে রাজ্জাক শারিরিকভাবে নির্যাতন শুরু করে। এক পর্যায়ে তার হাতে থাকা মোবাইল ফোন ছুঁড়ে মারলে ব্যবসায়ী বজলু আহত হন। পরে তাকে জেলা সদর হাসপাতালে চিকিৎসা দেয়া হয়।

তবে আহত ব্যবসায়ীর অভিযোগ করেন, মস্তফাপুর বাসস্ট্যান্ড এলাকায় একটি দোকান ভাড়া নেয়াকে কেন্দ্র করে রাজ্জাক খানের সাথে তার দ্বন্দ্ব শুরু হয়। এরপরে একের পর এক হয়রানীয় শুরু করেন রাজ্জাক।

বৃহস্পতিবার সকালে বিনা অপরাধে তাকে থানার ভেতর ডেকে নিয়ে গিয়ে থানা পুলিশের বেশ কয়েকজন সদস্যের উপস্থিতিতেই তাকে আহত করা হয়। এ ঘটনার বিচার দাবী করেন তিনি।

এদিকে আহত ওই ব্যবসায়ীর বিরুদ্ধে পারিবারিকভাবে একটি মামলা দায়ের করেছে এসআই রাজ্জাক খান। এই মামলায় বজলুকে গ্রেফতার দেখিয়ে আদালতে প্রেরণ করা হয়েছে।

তবে অভিযুক্ত হাইওয়ে পুলিশের এসআই রাজ্জাক খানের দাবী, পারিবারিক বিষয় নিয়ে ঝামেলার কারনে রেগে গিয়ে হাতে থাকা মোবাইল ফোন বজলু খানের দিকে ছুঁড়ে মারেন তিনি।

মাদারীপুর সদর মডেল থানার পরিদর্শক (তদন্ত) মো. শহিদুল ইসলাম জানান, অভিযুক্ত হাইওয়ে পুলিশের উপ-পরিদর্শকের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। তার সংশ্লিষ্ট অফিসেও এ ব্যাপারে জানানো হবে ও বিভাগীয় ব্যবস্থা গ্রহনের জন্য।

নিউজটি শেয়ার করুন


এ জাতীয় আরো খবর..