মঙ্গলবার, ২৬ জানুয়ারী ২০২১, ০৫:২৯ পূর্বাহ্ন

কুড়িগ্রাম এক্সপ্রেস ট্রেনের গতি দ্বিগুনের লক্ষ্যে লাইন সংস্কারের কাজ শুরু

mm
রাকিবুল হাসান,, কুড়িগ্রাম প্রতিনিধিঃ
  • আপডেট সময় শুক্রবার ২৫ ডিসেম্বর, ২০২০
  • ৫৯বার পঠিত

ঢাকাগামী কুড়িগ্রাম এক্সপ্রেস ট্রেনের গতি দ্বিগুন বাড়ানোর লক্ষ্যে রেল লাইন সংস্কারের কাজ শুরু হয়েছে। সংশ্লিষ্ট সুত্র জানিয়েছে, বর্তমানে কুড়িগ্রাম থেকে তিস্তা পর্যন্ত ২০ কিঃ মিঃ রেল লাইনের অবস্থা খুব বেশী ভাল নয়। একারণে কুড়িগ্রাম থেকে তিস্তা পর্যন্ত কুড়িগ্রাম এক্সপ্রেস ট্রেনের গতি প্রতি ঘন্টায় ৩০ কিঃ মিঃ। এই গতি সীমা দ্বিগুন অর্থাৎ প্রতি ঘন্টায় ৬০ কিঃ মিঃ করার লক্ষ্যে ২০ কোটি টাকা ব্যয়ে রেল পথ সংস্কারের কাজ শুরু করা হয়েছে।

সুত্র জানায়, কুড়িগ্রাম থেকে তিস্তা পর্যন্ত ২০ কিঃ মিঃ রেল লাইনের স্লিপারের ঘনত্ব বাড়ানো, রেল লাইনের উপর পর্যাপ্ত পাথর ফেলানো, ঝুঁকিপুর্ন এলাকায় প্রোটেকশন ওয়াল নির্মান, রাজারহাট রেল ষ্টেশনে নতুন একটি লুপ লাইন স্থাপন সহ রেল লাইনের জয়েন্ট কমানোর কাজ বাস্তবায়ন করা হবে।

সুত্র আরো জানায়, লালমনিরহাট রেলওয়ের প্রকৌশল বিভাগের তত্ত্ববধায়নে চলতি বছরের ২০২১ সালের এপ্রিল মাসে কাজটি সমাপ্ত হবার কথা রয়েছে। রেল লাইন সংস্কারের কাজ শুরু হতে দেখে এবং বিপুল পরিমাণ রেললাইনের পাথর কুড়িগ্রামে মজুদ করা হচ্ছে দেখে এলাকার মানুষের মাঝে উৎফুল্যতা লক্ষ্য করা গেছে।

এ ব্যাপারে রেল- নৌ, যোগাযোগ ও পরিবেশ উন্নয়ন গণকমিটির প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি তাজুল ইসলাম ও সাবেক সভাপতি নাহিদ হাসান নলেজের সাথে কথা হলে তারা বলেন- আমরা তিস্তা থেকে রমনা পর্যন্ত রেল লাইন সংস্কার জন্য দাবী জানিয়ে আসছিলাম। তদস্থলে কাজ হচ্ছে কুড়িগ্রাম থেকে তিস্তা পর্যন্ত। এই কাজ শুরু হওয়াতে আমরা সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষকে অভিনন্দন জানাই।

তবে এই কাজের সাথে কুড়িগ্রাম থেকে রমনা পর্যন্ত রেল লাইন সংস্কারের জন্য আবারো দাবী জানাচ্ছি। এর পাশাপাশি সংস্কার কাজের গুনগতমান বজায় রাখার জন্য সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের প্রতি দৃষ্টি আকর্ষন করছি। কুড়িগ্রাম-২ আসনের সংসদ সদস্য আলহাজ্ব পনির উদ্দিন আহমেদ বলেছেন- সকল প্রক্রিয়া শেষে কাজ শুরু করায় আমি আশান্বিত হয়েছি। যত দ্রুত সম্ভব একাজটি যেন সমাপ্ত করা হয়।

রেলওয়ে বিভাগের সিনিয়র উপ-সহকারী প্রকৌশলী আব্দুর রাজ্জাক জানান- মধ্যপাড়া পাথর খনি থেকে উন্নতমানের ব্যালাস্ট (রেললাইনের পাথর) নিয়ে আসা হয়েছে। নির্ধারিত সময়ের মধ্যে কাজ শেষ করার জন্য আমরা ঠিকাদারকে তাগাদা দিয়ে যাচ্ছি। আশা করছি নির্ধারিত সময়ে কাজটি সম্পন্ন হবে। তিনি আরও বলেন, বর্তমান উন্নয়ন বান্ধব সরকার থাকায় দেশের যোগাযোগখাতে ব্যাপক উন্নয়ন সম্ভব হয়েছে।

লালমনিরহাট রেলওয়ে প্রকৌশল বিভাগের বিভাগীয় প্রকৌশলী আনোয়ার হোসেন জানিয়েছেন- কুড়িগ্রাম থেকে তিস্তা পর্যন্ত রেল লাইন সংস্কারের কাজ শেষ হলে চলাচলকারী ট্রেন সমুহের রানিং টাইম কমে যাবে ফলে যাত্রীরা আরো স্বল্প সময়ে কুড়িগ্রাম থেকে বিভিন্ন গন্তব্যে যেতে পারবেন। এছাড়া কুড়িগ্রাম থেকে রমনা পর্যন্ত রেল লাইন সংস্কারের কাজ শুরু করার জন্য যাবতীয় প্রক্রিয়ার কাজ এগিয়ে নেওয়া হচ্ছে। আশা করি সেটিও অচিরেই শুরু হবে।

শেয়ার করুন


এ জাতীয় আরো খবর..

Adcash

Adcash