বুধবার, ২৪ ফেব্রুয়ারী ২০২১, ১১:১৮ অপরাহ্ন

কুড়িগ্রামের চরাঞ্চলে জনপ্রিয় হয়ে উঠেছে, পরিবেশ বান্ধব ঘোড়ার গাড়ি

mm
রাকিবুল হাসান,, কুড়িগ্রাম প্রতিনিধি:
  • আপডেট সময় সোমবার ২২ ফেব্রুয়ারী, ২০২১
  • ৩২বার পঠিত


আধুনিক-অত্যাধুনিক যান্ত্রিক পরিবহন ব্যবস্থা প্রসারের এ যুগেও কুড়িগ্রাম এখনো যেন রয়ে গেছে অতীত-বর্তমানের মাঝামাঝি স্থানে। এখানে সময় যেন স্থির হয়ে আছে। ডিজিটাল এই যুগেও এখানে এখনো রয়েছে, পশুটানা ঘোড়ার গাড়ির দাপট। কুড়িগ্রামের প্রত্যন্ত চরাঞ্চল ও গ্রামাঞ্চল এ কথাই জানান।

কুড়িগ্রামের চরাঞ্চলে জনপ্রিয় হয়ে উঠেছে পরিবেশ বান্ধব ঘোড়ার গাড়ি। একমাত্র বাহন হিসেবে চরাঞ্চলের এসব ঘোড়ার গাড়ি এখন বন্যায় ক্ষতিগ্রস্ত কাঁচা-পাকা সড়কসহ শহরের অলিতে-গলিতে পণ্য পরিবহন করছে। আর দু’চাকার এ ঘোড়ার গাড়ি চালিয়ে জীবিকা নির্বাহ করছে হাজারো মানুষ।

নদ-নদী তীরবর্তী চরাঞ্চলের বালু পথে অন্য কোন গাড়ি চলতে না পারলেও খুব সহজেই চলছে দুই চাকার ঘোড়ার গাড়ি। পরিবেশ বান্ধব এ বাহন লাভজনক হওয়ায়, কুড়িগ্রাম জেলায় ঘোড়ার গাড়ির সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে। চরাঞ্চল ছাড়িয়ে এ ঘোড়ার গাড়ি ছড়িয়ে পড়েছে শহর ও গ্রামাঞ্চলেও। এতে লাভবান হচ্ছেন ঘোড়ার গাড়ির মালিক, পাশাপাশি কম খরচে পন্য পরিবহন করে লাভবান হচ্ছেন ব্যবসায়ীরাও।

১০ থেকে ১৫ হাজার টাকায় একটি গাড়ি বানিয়ে ঘোড়া কিনে প্রতিদিন পন্য পরিবহনে আয় করছেন ৬ থেকে ৮’শ টাকা। তাই দিয়ে পরিবারের ভরণপোষণসহ ছেলে-মেয়েদের লেখা পড়ার খরচ বহন করে আসছেন তারা। যেখানে অন্য কোন গাড়ি সাধারণত চলাচল করতে পারে না, সেখানেই তারা মালামাল বহন করেন। ঘোড়ার গাড়ি ব্যবহারে চরাঞ্চলে পন্য পরিবহন সুবিধার পাশাপাশি মিলছে জ্বালানী সুরক্ষা। তাই পরিবেশ বান্ধন এ বাহনকে টিকিয়ে রাখার দাবি সংশিষ্টদের।

শেয়ার করুন


এ জাতীয় আরো খবর..