রবিবার, ১৬ মে ২০২১, ০৮:২০ অপরাহ্ন

পীরগাছায় ৫শ মিটার নদী খনন ও সিসি ব্লক বসানো হলেই বেচে যাবে শতাধিক বসতি

mm
একরামুল ইসলাম, পীরগাছা (রংপুর)
  • আপডেট সময় মঙ্গলবার ২০ এপ্রিল, ২০২১
  • ৭৪বার পঠিত
নদী খনন ও সিসি ব্লক বসানো হলেই বেচে যাবে শতাধিক বসতি ছবি ফাইল

রাক্ষুসী ঘাঘট নদীর দুইশত ফিট দুরে বসতি গড়ে ছিলেন দিনমজুর হানিফ আলী ও রোকেয়া বেগম। সুখে-দুখে কাটছিল তাদের জীবন। কিন্তু গত ৫ বছর তাদের তাড়া করে ঘরের কিনারে চলে এসেছে ঘাঘট নদী। ভাঙ্গনের মুখে পড়েছে তার বসত ঘরটিও। তাদের মতো অসহায় হয়ে পড়েছে ঘাঘট নদী বেষ্টিত পীরগাছা উপজেলার পিয়ারপাড়া ও কুটিপাড়া গ্রামের শতাধিক মানুষ। এই শুষ্ক মৌসুমে নদীতে ঢেউ না থাকলেও বর্ষা এগিয়ে আসায় চিন্তায় অস্থির পরিবারগুলো।

সম্প্রতি রংপুর পানি উন্নয়ন বোর্ড পিয়ারপাড়া ও কুটিপাড়া এলাকার ঘাঘট নদীর ৫শ মিটার খনন এবং সিসি ব্লক বসানোর জন্য পরির্দশন করে প্লান তৈরি করলেও বরাদ্দ মেলেনি। এতে স্থানীয় সাংসদ, বানিজ্যমন্ত্রী টিপু মুনশিও সুপারিশ করেছেন। এলাকাবাসী ওই স্থানটিতে দ্রুত নদী ড্রেজিং করে সিসি ব্লক বসানোর দাবি করছেন।


সরেজমিনে গিয়ে দেখা গেছে, পীরগাছা উপজেলার সদর ইউনিয়নের অবহেলিত দুটি গ্রাম পিয়ারপাড়া ও কুটিপাড়া। এ গ্রামের মানুষ ঘাঘট নদী বেষ্টিত হওয়ায় রাস্তা-ঘাটে উন্নয়নের ছোয়া লাগেনি। বরং বছরে বছরে নদীগর্ভে চলে গেছে মানুষের বসতবাড়ী ও আবাদি জমি। নদীর পিয়ারপাড়া গ্রামের উত্তরে একটি বাঁধ দেওয়া হলেও তা কাজে লাগেনি।

দুই বছর আগে ভেঙ্গে নদীর গতিপথ বদলে গেছে। ওই গ্রামের বাসিন্দা ইব্রাহিম মিয়া, সাইফুল ইসলাম, আঃ মান্নান, জাহিদুল ইসলাম, মাইদুল ইসলাম বলেন, নদী ধীরে ধীরে গ্রাম দুটিকে আক্রমন করছে। ৫ বছর আগেও দুইশ মিটার দুরে ছিল নদী। এখন ঘরের কিনারে চলে এসেছে। বর্ষা এলে ভাঙ্গন প্রকট আকার ধারন করবে।


ওই এলাকার স্কুল শিক্ষক রেজাউল করিম বলেন, মুল নদীর ওই স্থানে ৭শ মিটার ড্রেজিং করে সিসি ব্লক বসানো হলে বেচে যাবে এ গ্রামটির শতাধিক বাড়িঘর। রক্ষা পাবে আবাদি জমিগুলোও। তবে এই শুষ্ক মৌসুমে ড্রেজিং করলেও কিছুটা রক্ষা হবে গ্রামবাসীর।

না হলে আগামী বর্ষা নদী আরো ভয়াবহ রুপ ধারণ করবে। তাই বিষয়টি নিয়ে প্রশাসনের হস্তক্ষেপ কামনা করছি।
এ বিষয়ে উপজেলা নির্বাহী অফিসার শেখ শামসুল আরেফীন বলেন, ওই বাড়িঘর গুলো যেন বেচে যায়, সেজন্য পানি উন্নয়ন বোর্ডের কর্মকর্তাদের সাথে কথা বলে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হবে।

শেয়ার করুন


এ জাতীয় আরো খবর..