রবিবার, ১৬ মে ২০২১, ১০:০৮ অপরাহ্ন

খাগড়াছড়িতে গঞ্জপাড়ার নুরু জমি সংক্রান্ত শত্রুতার জেরে সন্ত্রসী হামলায় শিকার

mm
পার্বত্যাঞ্চল প্রতিনিধিঃ
  • আপডেট সময় বৃহস্পতিবার ২৯ এপ্রিল, ২০২১
  • ২১৬বার পঠিত

খাগড়াছড়ি জেলা সদরের গঞ্জপাড়ায় জমি সংক্রান্ত পূর্ব শত্রুতার জেরে প্রতিপক্ষের হামলায় মো. নুরুল আলম(৪৭) গুরুতর আহত হওয়ার খবর পাওয়া গেছে।

মঙ্গলবার(২৭এপ্রিল) রাত ১০টার দিকে জেলা সদরের দক্ষিণ গঞ্জপাড়ার এম এ হক মাদ্রাসা এলাকায় শহর মুল্লুকের বাড়ির পার্শ্বে এ হামলার ঘটনা ঘটে।

জানা গেছে, দক্ষিণ গঞ্জপাড়ার মৃত মো. আতর আলীর ছেলে মো. নুরুল আলম নুরু(৪৭) এর ভাগিনা উজ্জ্বলকে আজাদ গং ঘটনার দিন রাতে তারাবির নামাযের পর ডেকে নিয়ে মারধর করে। ভাগিনা মামাকে মোবাইল করলে নুরু বাড়ি থেকে বের হয়ে মারধরের কারণ জিজ্ঞাসাবাদ করলে একই এলাকার মীর হোসেনের ছেলে আজাদ(২৫), মজল হকের ছেলে মো.ইব্রাহিম(৩২), মজল হকের ছেলে জয়নাল(২৫), শফি কসাইয়ের ছেলে ইলিয়াস(২৬) কুরবান আলীর ছেলে তৈয়ব আলীসহ অজ্ঞাত আরোও ১৫/২০জন মিলে তাকেও মাথায়, ডান চোখের নীচে, পিঠে ও শরীরের বিভিন্ন অংশে রড-লাঠিসোটা দিয়ে সজোরে আঘাত ও লাথি কিল-ঘুসি দিয়ে রক্তাক্ত জখম করে।

তার আত্মচিৎকারে এলাকাবাসী এসে পড়লে হামলাকারীরা পালিয়ে যায়। পরে এলাকাবাসী তাকে উদ্ধার করে হাসপাতালে ভর্তি করে। তার মাথায় ১২টি সেলাই দেয়া হয়েছে।

এ ব্যাপারে ভুক্তভোগী নুরুল আলম নুরু বলেন, আমার উপর আজাদগংদের হামলা ছিলো পূর্ব পরিকল্পিত। ২০০১ইং সালে চোন্দি অং মগ থেকে আমার ক্রয়কৃত রেকর্ডিয় জায়গায় আমার বোনকে ভাড়ায় বসবাস করতে দেয়ায় আমার বোনের নিকট বাসা ভাড়া সংক্রান্ত দ্বন্দ্ব চলছিলো। এ দ্বন্দ্বে আমার রেকর্ডিয় জায়গা দখলে নিতে অতি উৎসাহী হয়ে একই এলাকার আজাদগংদের কয়েকজন বখাটে যুবক সাথে নিয়ে বোনকে আমার বিরুদ্ধে নানাভাবে পরামর্শ ও প্রশ্রয় দিয়ে আসছিলো। এব্যাপারে পূর্বে একাধিক মামলা-মোকাদ্দমা হয়েছে।

এতে সন্ত্রাসীরা সুবিধা করতে না পেরে ৫জন চিন্নিত সন্ত্রাসীসহ ১৫/২০জন মিলে আমাকে জানে মেরে ফেলার পরিকল্পনায় হামলা করে। গত ১মাস আগে তারা আমার ছেলেকে জানে মেরে ফেলার হুমকি দিয়েছে।

এ ব্যাপারে গতকাল খাগড়াছড়ি সদর থানায় মামলা দায়ের করা হয়েছে।

শেয়ার করুন


এ জাতীয় আরো খবর..