• E-paper
  • English Version
  • মঙ্গলবার, ২৬ মে ২০২০, ০৮:২৫ পূর্বাহ্ন

বিজ্ঞপ্তিঃ

আমাদের অনলাইন নিউজ পোর্টালে আপনাকে স্বাগতম । জনপ্রিয় অন লাইন “বাংলাদেশ দর্পণ২৪.কম সারাদেশে বিভাগীয়, জেলা, উপজেলা, থানা, কলেজ, বিশ্ববিদ্যালয় ও ইউনিয়ন পর্যায়ে নিয়োগ চলছে। উদ্যমী পরিশ্রমী সৎ নির্ভীক ও দেশ প্রেমিক সাংবাদিক,যিনি সৃজনশীল মনন ও মানসে লালিত এবং বাঙ্গালী জাতিসত্তা ও জাতীয় চেতনায় সদাজাগ্রত এবং মুক্তিযুদ্ধ ও স্বাধীনতা সংগ্রামের আদর্শ ও প্রেরনায় উজ্জিবিত, এমন প্রগতিশীল ভাব ও ভাবনায় দীক্ষিত সংবাদকর্মীদের নিয়োগ দেওয়া হবে । গঠনমূলক সাংবাদিকতায় বিশ্বাসী, চ্যালেঞ্জিং পেশায় ক্যারিয়ার গড়তে আগ্রহী, লেখালেখির প্রতি অনুরাগী ও দেশ মাতৃকার সেবাই নিয়জিত, জাতির উন্নয়ন এবং অগ্রগতির সহযাত্রী হতে প্রত্যাশীদের  এই পত্রিকায় সংবাদকর্মী হওয়ার জন্য আবেদন করতে অনুরোধ করা যাচ্ছে। যোগ্যতাঃ সর্বনিম্ন এইচএসসি পাস। আবেদন প্রক্রিয়াঃ অন লাইন এ ইমেইলের মাধ্যমে “ বাংলাদেশ দর্পণ২৪.কম  এর  ইমেইল ঠিকানায় এক কপি ছবি, জীবন বৃত্তান্ত, এনআইডি/জন্মনিবন্ধন এবং সঙ্গে এক বা একাধিক নিউজ, ভিউজ ও ফিচারের নমুনা সংযুক্ত করে আবেদন করতে পারবেন। ই-মেইল ঠিকানাঃ news.bddorpon24@gmail.com ।আবেদন এর সময়সীমাঃ সব বিভাগ, জেলা, উপজেলা, থানা এবং কলেজ বিশ্ববিদ্যালয়ে  সংবাদকর্মী নিয়োগ সম্পন্ন না হওয়া পর্যন্ত আবেদন করা যাবে। একই এলাকার একাধিক আবেদনকারী হলে, অধিকতর যোগ্য আবেদনকারী বেছে নেওয়া হবে। 

রমজানের শেষ ১০ রাত ইবাদতে কাটান

প্রকাশক
  • আপডেট টাইম : শুক্রবার ১৫ মে, ২০২০
  • ১৫বার

হজরত সালমান ফারসি (রা.) থেকে বর্ণিত হুজুর সা. বলেছেন, রমজানের প্রথম দশদিন রহমত, দ্বিতীয় দশদিন মাগফেরাত ও তৃতীয় দশদিন মুক্তির।

হাদিসে বর্ণিত আছে, এই (রমজান) মাসের প্রথম অংশ রহমত; অর্থাৎ এই অংশে আল্লাহ তায়ালার নেয়ামত ও পুরস্কার এগিয়ে আসতে থাকে এবং আল্লাহ তায়ালার এই ব্যাপক রহমত সাধারণভাবে সব মুসলমানদের জন্য হয়। অতঃপর যারা এই রহমতের জন্য আল্লাহর শোকর আদায় করে তাদের ওপর রহমতের বর্ষণ আরো বাড়িয়ে দেওয়া হয়।

‘তোমরা শোকর করলে অবশ্যই আমি (নেয়ামত ও পুরস্কার) বাড়িয়ে দেবো-(সুরা ইব্রাহিম, আয়াত-৭)’

এই মাসের মাঝের অংশ থেকে মাগফেরাত অর্থাৎ গোনাহমাফি শুরু হয়ে যায়। কারণ রোজার কিছু অংশ অতিবাহিত হয়েছে; যার বদলা ও সম্মানস্বরূপ মাগফেরাত শুরু হয়ে যায়। আর এই মাসের শেষ অংশে তো (জাহান্নামের) আগুন থেকে একেবারে মুক্তিই হয়।

হজরত জাকারিয়া (র.) বলেন, রহমত, মাগফেরাত ও জাহান্নাম থেকে মুক্তি এই তিন অংশের মধ্যে পার্থক্য এই যে, মানুষ তিন প্রকারের হয়। এক, ওই সমস্ত লোক যাদের ওপর গোনাহের বোঝা নেই; এই সমস্ত লোকের জন্য তো রমজানের শুরু থেকেই রহমত এবং নেয়ামত ও পুরস্কারের বৃষ্টি বর্ষণ শুরু হয়ে যায়।

দ্বিতীয় প্রকার, ওই সব মানুষ যারা মামুলি গোনাহগার; তাদের জন্য রমজানের কিছু অংশ রোজা রাখার পর এই রোজার বরকতে ও বদলায় মাগফেরাত হয়।

আর তৃতীয় প্রকার, ওই সব মানুষ যারা বেশি গোনাহগার; তাদের জন্য রমজানের বেশিরভাগ রোজা রাখবার পর জাহান্নাম থেকে মুক্তি হয়। আর যাদের জন্য রমজানের শুরু থেকে রহমত ছিল এবং আগে থেকে তাদের গোনাহ মাফ হয়েছিল, তাদের জন্য যে কী পরিমাণ আল্লাহর রহমতের স্তূপ লেগে যাবে তা বলার অপেক্ষা রাখে না।

সামনে মুক্তির দশদিন। এই দশদিনকে নবী করিম সা. অনেক গুরুত্ব দিতেন।

হজরত আয়েশা (রা.) থেকে বর্ণিত, তিনি বলেন, যখন রমজানের শেষ দশদিন শুরু হতো, তখন হুজুর সা. রাতে জেগে থাকতেন। এমনকি তার আহলিয়াকেও জাগ্রত করতেন এবং ইবাদতের অত্যাধিক চেষ্টা করতেন।

অন্য একটি হাদিসে পাওয়া যায় যে রাসুল সা. এই (শেষ) দশদিনে যত বেশি ইবাদত করতেন রমজানের অন্য রাতে ততবেশি ইবাদত করতেন না। এর উদ্দেশ্য কদরের রাতকে তালাশ করা। যে রাতের মর্যাদার কথা আল্লাহ নিজে সুরা কদরে বর্ণনা করেছেন যে, তা হাজার মাস থেকেও উত্তম বা শ্রেষ্ঠ।

তাই আমাদের উচিত শেষ দশদিনের রাতগুলো এবাদতের মাধ্যমে কাটিয়ে দেওয়া। বর্তমানেও পৃথিবীতে আল্লাহর প্রিয় বান্দারা এমনও আছেন যে তারা এই দশদিনের রাতে ঘুমান না। তার এবাদতের মাধ্যমে রাত কাটিয়ে দেন।

আমাদের সর্ব ধরনের পাপের কাজ থেকে বিরত থাকা দরকার। বিশেষ করে চোখের হেফাজত করা অত্যাধিক প্রয়োজন। কেননা কু-দৃষ্টি শয়তানের তীরের মতো যা মানুষকে চরমভাবে ক্ষতি করে।

নির্জনে আল্লাহর ইবাদত করা। নফল এবাদত গোপনে করা উত্তম আর ফরজ ইবাদত প্রকাশ্যে করা জরুরি। আর আমরা যা কিছু ইবাদত করি না কেন এবং পাপের কাজ থেকে বিরত থাকি না কেন সবই আল্লাহ তায়ালার সন্তুষ্টির উদ্দেশ্যে করবো। কোনো মানুষের সন্তুষ্টির জন্য নয়। আল্লাহ তায়ালা আমাদের তাওফিক দান করুন-আমিন।

নিউজটি শেয়ার করুন আপনার সোশ্যাল মিডিয়ায়..

add


এ জাতীয় আরো সংবাদ..

আমাদের ইউটিউব চ্যানেল

সাহরি ও ইফতারের সময় সূচি

সাহরি ও ইফতারের সময়সূচী
( মঙ্গলবার,২৬ মে ২০২০ )
 বিভাগ
 সাহরি শেষ
 ইফতার
 ঢাকা
 ০৬:০০ মিঃ
 ০৬:০০ মিঃ
 চট্টগ্রাম
 ০৫:৫৮ মিঃ
 ০৫:৫২ মিঃ
 সিলেট
 ০৫:৫১ মিঃ
 ০৫:৫৬ মিঃ
 রাজশাহী
 ০৬:০৫ মিঃ
 ০৬:০৮ মিঃ
 বরিশাল
 ০৬:০২ মিঃ
 ০৫:৫৮ মিঃ
 খুলনা
 ০৬:০৬ মিঃ
 ০৬:০২ মিঃ
 রংপুর
 ০৫:৫৯ মিঃ
 ০৬:০৬ মিঃ
 ময়মনসিংহ
 ০৫:৫৭ মিঃ
 ০৬:০১ মিঃ