বৃহস্পতিবার, ০৪ মার্চ ২০২১, ০৭:০৭ পূর্বাহ্ন

ঘোড়াঘাটে অভিনব কায়দায় সংঘবদ্ধ চোর চক্রের এক সদস্য আটক

mm
মনোয়ার বাবু(ঘোড়াঘাট)দিনাজপুর প্রতিনিধিঃ
  • আপডেট সময় রবিবার ১৬ আগস্ট, ২০২০
  • ৩১১বার পঠিত

প্রথমে পরিকল্পনা! তারপর নারী চোরের দাড়ায় তথ্য সংগ্রহ! অতপর রাতের আধারে সর্বস্ব লুট। এমনই এক সংঘবদ্ধ চোর চক্রের এক সদস্যকে গ্রেফতার করেছে দিনাজপুরের ঘোড়াঘাট থানা পুলিশ।

গ্রেফতারকৃত আসামী হলো, উপজেলার ঋষি খাট গ্রামের আব্দুর সাত্তার মিয়ার ছেলে জাহিদুল ইসলাম (৪৮)।

জানা যায়, গত জুলাই মাসের শেষের দিকে ঘোড়াঘাট পৌর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আসাদুজ্জামান ভুট্টু বাড়িতে রাতের আধারে স্বর্ণালঙ্কার সহ প্রায় ১৪ থেকে ১৫ লক্ষ টাকার টাকার মালামাল লুটে নেয় চোরেরা। এর কয়েকদিন পর চলতি আগষ্ট মাসের প্রথম সপ্তাহে পৌর এলাকার লালমাটির সামসুলের বাড়িতে চুরির ঘটনা ঘটে। তার বাড়ি থেকেও প্রায় ৫ লক্ষাধিক টাকার মালামাল লুটে নেয় চোরেরা। এরপর গত বৃহঃপতিবার পুলিশ সন্দেহভাজন হিসেবে শহিদ নামের একজন আসামীকে গ্রেফতার করে জেল হাজতে প্রেরণ করে। এরপর জেল গেটে শহিদকে জিজ্ঞাসাবাদ করলে সে পরপর দুইটি চুরির ঘটনায় জড়িত হিসেবে গ্রেফতারকৃত আসামী জাহিদুলের নাম স্বীকার করে।

পুলিশ জানায়, গ্রেফতারকৃত আসামী জাহিদুল প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে স্বীকার করে সে সংঘবদ্ধ চোর চক্রের সদস্য। তারা দিনাজপুর, গাইবান্ধা ও রংপুর জেলার বিভিন্ন এলাকায় সংঘবদ্ধ ভাবে চুরি সংঘটিত করে। তারা পরিকল্পনা অনুযায়ী একজন নারী চোরের সাহায্য প্রথমে বিভিন্ন তথ্য উপাত্ত সংগ্রহ করে এবং সেই তথ্য অনুযায়ী রাতের আধারে সংঘবদ্ধ ভাবে চুরি করে।

উল্লেখ্য, এই সংঘবদ্ধ চোর চক্রের আর এক সদস্য পলাশ বাড়ি বড়শিমুলতলীর আঃ রউফ সরকারের ছেলে মোঃ জহুরুল ইসলাম(৩২) গত ১৩ আগস্ট পলাশবাড়ী থানা পুলিশ দ্বারা আটক হয়ে বর্তমানে গাইবান্ধা জেলহাজতে বন্দি আছে।

ঘোড়াঘাট থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) আমিরুল ইসলাম বলেন, জিজ্ঞাসাবাদে গ্রেফতারকৃত আসামী তাদের সংঘবদ্ধ চোর চক্রের বেশ কয়েক জনের নাম স্বীকার করেছে। তাদেরকে গ্রেফতারেও আমাদের অভিযান চলমান আছে।

শেয়ার করুন


এ জাতীয় আরো খবর..