বৃহস্পতিবার, ০৪ মার্চ ২০২১, ১২:৪৫ পূর্বাহ্ন

মুজিববর্ষেই হকির দুটি আন্তর্জাতিক টুর্নামেন্ট অনুষ্ঠিত হবে

mm
নিজস্ব প্রতিবেদক
  • আপডেট সময় মঙ্গলবার ১৮ আগস্ট, ২০২০
  • ৯২বার পঠিত

জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকী ‘মুজিববর্ষে’ খেলাধুলার যে নানা আয়োজন ছিল তার মধ্যে দুটি আন্তর্জাতিক হকি টুর্নামেন্ট হওয়ার কথা ছিল ঢাকায়। একটি বঙ্গবন্ধু অনূর্ধ্ব-২১ জুনিয়র এশিয়া কাপ, অন্যটি এশিয়ান চ্যাম্পিয়নস ট্রফি। জুনিয়র এশিয়া কাপ হওয়ার কথা ছিল ৪ থেকে ১৪ জুন এবং চ্যাম্পিয়নস ট্রফি অক্টোবরে। করোনাভাইরাসের কারণে দুটি টুর্নামেন্টেই অনির্দিষ্টকালের জন্য স্থগিত হয়ে যায়।

মুজিববর্ষ শুরু হয়েছে এ বছর ১৭ মার্চ থেকে। শেষ হবে আগামী বছর ১৭ মার্চ। বাংলাদেশ হকি ফেডারেশন এই সময়ের মধ্যেই দুটি টুর্নামেন্ট করতে পারছে। সুসংবাদটা তারা পেয়েছে কয়েকদিন আগে। এশিয়ান হকি ফেডারেশন বাংলাদেশকে চিঠি দিয়ে মার্চে চ্যাম্পিয়নস ট্রফি আয়োজনের সবুজ সঙ্কেত দিয়েছে। এশিয়ার হকির অভিভাবক সংস্থার দেয়া প্রস্তাবিত তারিখ অনুযায়ী আগামী বছর ১১ থেকে ১৯ মার্চ হবে এশিয়ার হকির মর্যাদার এই টুর্নামেন্ট।

এশিয়ান হকি ফেডারেশন চ্যাম্পিয়নস ট্রফির তারিখ নির্ধারণ করলেও জুনিয়র এশিয়া কাপ নিয়ে কিছু বলেনি। তবে বাংলাদেশ হকি ফেডারেশন চাইছে বঙ্গবন্ধু অনূর্ধ্ব-২১ জুনিয়র এশিয়া কাপ চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফির আগেই আয়োজন করতে। এ প্রস্তাব এশিয়ান হকি ফেডারেশনকে দেয়া হয়েছে বলে জানিয়েছেন বাংলাদেশ হকি ফেডারেশনের ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক মোহাম্মদ ইউসুফ।

দুটি টুর্নামেন্টের মধ্যে জুনিয়র এশিয়া কাপ বঙ্গবন্ধুর নামে আয়োজন করতে টাইটেল স্পন্সরশিপ কিনতে হয়েছে বাংলাদেশ হকি ফেডারেশনকে। যে কারণে বাংলাদেশ হকি ফেডারেশন মুজিববর্ষেই বঙ্গবন্ধুর নামের এই জুনিয়র এশিয়া কাপ করতে চেয়েছে। বাংলাদেশের প্রস্তাবের পর এশিয়ান হকি ফেডারেশন অবশ্য বলেছিল ফেব্রুয়ারিতে জুনিয়র টুর্নামেন্টটি করতে। কিন্তু বাংলাদেশ হকি ফেডারেশন করতে চায় নতুন বছরের প্রথম মাসে।

‘আমরা চ্যাম্পিয়নস ট্রফির আগে বঙ্গবন্ধু জুনিয়র এশিয়া কাপ করতে চাওয়ার আগ্রহ প্রকাশ করলে এশিয়ান হকি ফেডারেশন ফেব্রুয়ারিতে করতে বলেছিল। কিন্তু আমরা চেয়েছি জানুয়ারিতে করতে। কারণ পরপর দুই মাসে দুটি আন্তর্জাতিক টুর্নামেন্ট আয়োজন করা কঠিন কাজ হবে। তাই আমরা জানুয়ারিতে আয়োজনের প্রস্তাব দিয়ে আলোচনা চালিয়ে যাচ্ছি এশিয়ান হকি ফেডারেশনের সঙ্গে’- বলছিলেন বাংলাদেশ হকি ফেডারেশনের ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক মোহাম্মদ ইউসুফ।

জুনিয়র এশিয়া কাপে অংশ নেবে ১০ দেশ। এই টুর্নামেন্ট অনূর্ধ্ব-২১ বিশ্বকাপেরও বাছাইপর্ব। এখান থেকে চারটি দল উঠবে বিশ্বকাপে। বাংলাদেশের সামনে তাই একটা সুযোগ আছে জুনিয়র বিশ্বকাপে কোয়ালিফাই করার। এই টুর্নামেন্টকে গুরুত্ব দিয়েই বাংলাদেশ হকি ফেডারেশন অনূর্ধ্ব-২১ দলের ফিটনেস ক্যাম্প শুরু করেছে বাংলাদেশ বিমান বাহিনীর ঘাঁটিতে।

১৬ জন জুনিয়র খেলোয়াড় নিয়ে করা হয়েছে এই ফিটনেস ক্যাম্প। জাতীয় দলের অনেক খেলোয়াড় আছেন যারা সার্ভিসেস দলের সদস্য। তারা নিজ নিজ প্রতিষ্ঠানে ট্রেনিং করছেন। তাদের মধ্যেও অনেকে আছে যারা অনূর্ধ্ব-২১ দলে খেলতে পারবেন। বাংলাদেশ হকি ফেডারেশন আশা করছে, এশিয়ান হকি ফেডারেশন জানুায়ারিতেই বঙ্গবন্ধু অনূর্ধ্ব-২১ জুনিয়র এশিয়া কাপ আয়োজনের অনুমতি দিয়ে তারিখ নির্ধারণ করবে।

জুনিয়র এশিয়া কাপে যে ১০ দেশ অংশ নেবে তাদের মধ্যে আগের আসরের শীর্ষ ৬ দল বাংলাদেশ, ভারত, জাপান, মালয়েশিয়া, পকিস্তান ও দক্ষিণ কোরিয়া খেলবে সরাসরি। চারটি দল উঠে এসেছে বাছাই পর্ব থেকে। গতবছর ডিসেম্বরে ওমানে অনুষ্ঠিত বাছাই পর্ব খেলে কোয়ালিফাই করেছে চীন, চাইনিজ তাইপে, ওমান ও উজবেকিস্তান। টুর্নামেন্টের সেমিফাইনালে উঠতে পারলেই বাংলাদেশ কোয়ালিফাই করবে অনূর্ধ্ব-২১ বিশ্বকাপ হকিতে।

চ্যাম্পিয়ন্স লিগে বাংলাদেশের অংশগ্রহণের সুযোগ আয়োজক হিসেবেই। এখানে ভারত, পকিস্তান, দক্ষিণ কোরিয়া আর মালয়েশিয়ার মতো দল থাকায় বাংলাদেশের ভালো কিছু করার সম্ভাবনা কম। যে কারণে বাংলাদেশ হকি ফেডারেশনের বেশি নজর জুনিয়র এশিয়া কাপ নিয়েই। ঘরের মাঠের এই টুর্নামেন্টে ভালো করতে পারলে বিশ্বকাপে কোয়ালিফাই করার সুযোগ থাকবে।

শেয়ার করুন


এ জাতীয় আরো খবর..