শনিবার, ২৮ নভেম্বর ২০২০, ১১:১৯ অপরাহ্ন

শিরোনাম :
৩দিন ব্যাপী অ্যাডভোকেসি,লবিং এবং নিগোসিয়েশন প্রশিক্ষণ উদ্বোধন কুড়িগ্রামে ২ হাজার হত দরিদ্র নারীদের মধ্যে স্বাস্থ্যসম্ম উপকরণ বিতরণ আন্তর্জাতিক নারী নির্যাতন প্রতিরোধ পক্ষ উপলক্ষে কালিয়ায় মানববন্ধন অনুষ্ঠিত আগামী ঘোড়াঘাট পৌরসভা নির্বাচনে সম্ভাব্য ০৪ নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর প্রার্থী সাইদুর রহমান সাজু দুর্গাপুরে ডিবি পুলিশের অভিযানে ১’শ ফেন্সিডিলসহ বোতলসহ গ্রেপ্তার ২ দুর্গাপুরে কয়লা ভর্তি ট্রাকের চাকায় পিষ্ট হয়ে মোটরসাইকেল আরোহী যুবকের মৃত্যু খাগড়াছড়ি-ঢাকা রুটে নতুন সংযোজন বিলাসবহুল গ্রীন লাইন সেবা পানছড়িতে ব্রীকফিল্ডে সন্ত্রাসী হামলা চকরিয়া-পেকুয়ায় বনের কাঠে তৈরী হচ্ছে অবৈধ ফিশিং বোট ধামইরহাটে সোনার বাংলা সংগীত নিকেতনের বার্ষিক বনভোজন ধামইরহাটে ফায়ার সার্ভিস স্টেশনের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন কুড়িগ্রাম সদরে হেরোইনসহ ৩ যুবক আটক চট্টগ্রাম-কক্সবাজার মহাসড়কে যাত্রীবেশে চলন্ত বাসে ডাকাতি, গুলিবিদ্ধসহ আহত ৯ রাজশাহীতে বালু তুলতে পদ্মা ভরাট করে রাস্তা নির্মাণ পৌর নির্বাচনকে সামনে রেখে শুরু হয়েছে প্রার্থীদের দৌড়-ঝাপ

গাইবান্ধায় ১ হাজার ১৮৫ জনের করোনা শনাক্ত

আল কাদরি কিবরিয়া সবুজ, (গাইবান্ধা) প্রতিনিধিঃ
  • আপডেট সময় শুক্রবার ২ অক্টোবর, ২০২০
  • ৪৬ বার পঠিত


বৈশ্বিক মহামারি নভেল করোনাভাইরাসে প্রতিদিনই বাড়ছে আক্রান্তের সংখ্যা। এ ছাড়া পাল্লা দিয়ে বাড়ছে মৃত্যুর সারি। এখন পর্যন্ত এ ভাইরাসে গাইবান্ধায় মৃত্যু হয়েছে ১৪ জনের। এ ছাড়া আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে এক হাজার ১শ’ ৮৫ জনে। এত মৃত্যু আর আক্রান্তের ভিড়ে সুস্থ হওয়ার খবরও মিলছে। শেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত করোনাভাইরাস থেকে জেলায় সুস্থ হয়ে আইসোলেশন থেকে ছাড়পত্র পেয়েছেন এক হাজার ৬৯ জন। এ ছাড়া চিকিৎসাধীন ১০২ জন। শুক্রবার (০২ অক্টোবর) সকালে জেলা প্রশাসনের সর্বশেষ পরিসংখ্যানে এসব তথ্য পাওয়া গেছে।

গাইবান্ধা জেলার করোনাভাইরাসের সর্বশেষ পরিসংখ্যান অনুযায়ী, করোনাভাইরাসজনিত কোভিড-১৯ রোগ থেকে জেলার সাত উপজেলায় সেরে উঠেছে ১০৬৯ জন। এরমধ্যে গাইবান্ধা সদরে ৩৭৯ জন, গোবিন্দগঞ্জে ৩০৯ জন, সাদুল্লাপুরে ৮৭ জন, পলাশবড়ীতে ৮৫ জন, সাঘাটায় ৭৪ জন, সুন্দরগঞ্জে ৭৫ জন ও ফুলছড়ি উপজেলায় ৬০ জন সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন।

এ ছাড়া সংখ্যাধিক্য অনুযায়ি শুক্রবার বিকেলে এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত গাইবান্ধা সদরে সবচেয়ে বেশি ৪৩১ জনের করোনা শনাক্ত হয়েছে (এরমধ্যে পৌর এলাকায় ৩৩০ জন)। এর পরের অবস্থানে গোবিন্দগঞ্জ উপজেলায় পাওয়া গেছে ৩২২ জন (এরমধ্যে পৌর এলাকায় ১৭৭ জন), পলাশবাড়ী উপজেলায় ১০৮ জন (এরমধ্যে পৌর এলাকায় ৬৪ জন), সাদুল্লাপুর উপজেলায় ৯৯ জন, সুন্দরগঞ্জ উপজেলায় ৮০ জন (এরমধ্যে পৌর এলাকায় ৩৪ জন), সাঘাটা উপজেলায় ৭৬ জন ও ফুলছড়ি উপজেলায় ৬৯ জন।

গাইবান্ধায় বর্তমানে আইসোলেশনে চিকিৎসাধীন ১০২ জনের মধ্যে ৪৯ জন গাইবান্ধা সদরে, পলাশবাড়ীতে ১৯ জন, গোবিন্দগঞ্জে ৯ জন, ফুলছড়িতে ৯ জন, সাদুল্লাপুরে ১০ জন, সুন্দরগঞ্জে ৪ জন ও সাঘাটায় ২ জন রয়েছেন।

জানা গেছে, এখন পর্যন্ত জেলায় মোট ১৪ জন করোনা আক্রান্তরোগী মারা গেছেন। এরমধ্যে গোবিন্দগঞ্জে ৪ জন, সদরে ৩ জন, সাদুল্লাপুরে ২ জন, পলাশবাড়ীতে ৪ জন এবং সুন্দরগঞ্জ উপজেলায় আরও ১ জনের মৃত্যু হয়েছে।

তবে করোনা সংক্রমণ নিয়ে স্থানীয়রা অনেকটাই অসচেতন। চলাচলে অসতর্কতা এবং সামাজিক দূরত্ব ও বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার স্বাস্থ্যবিধি কেউ সঠিকভাবে মেনে চলছেন না। সাধারণ মানুষ হাঁটবাজার, দোকানপাট ও রাস্তাঘাটে অবাধে চলাচল করছেন। চলছে চায়ের দোকানে আড্ডা। স্বাস্থ্যবিধি প্রতিপালনে কমেছে প্রশাসনের নজরদারিও। এতে করোনার ভয়াবহ সংক্রমণের আশঙ্কা করছেন স্বাস্থ্যসেবা সংশ্লিষ্টরা।

গত বছরের ডিসেম্বরে চীনের হুবেই প্রদেশের উহান শহরে প্রথম দেখা দেওয়া প্রাণঘাতী করোনাভাইরাস বাংলাদেশসহ বিশ্বের দুই শতাধিক দেশ ও অঞ্চলে ছড়িয়ে পড়ে এবং গত ১১ মার্চ করোনাভাইরাস সংকটকে মহামারি ঘোষণা করে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা (ডব্লিউএইচও)।

নিউজটি শেয়ার করুন


এ জাতীয় আরো খবর..