মঙ্গলবার, ০১ ডিসেম্বর ২০২০, ১২:০৭ অপরাহ্ন

শিরোনাম :
কুড়িগ্রাম থানা পুলিশ বাস উপহার পেল আইজিপি কর্তৃক কুড়িগ্রামের রাজারহাট থানায় মাস্ক না পরায় জরিমানা১৮ ঘোড়াঘাট ৪ নং ইউপি’র তরুন উদ্যোক্তা নূরনবী এবার সম্ভাব্য চেয়ারম্যান পদ প্রার্থী পৌরসভা নির্বাচন ২০২০, মেয়র প্রার্থী হিসেবে ধানের শীষ প্রতিক পেলেন যারা ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে চাল আত্মসাতের অভিযোগ সাঘাটায় মুক্তিযোদ্ধা যাচাই-বাছাই অনুষ্ঠিত দূর্গাপুরে কৃষক লীগের উদ্যোগে প্রান্তিক কৃষকদের কৃষি বীজ বিতরণ কুড়িগ্রাম জেলার ফুলবাড়ী উপজেলায় ৪২ তম জাতীয় বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি সপ্তাহ ২০২০ পালিত কুড়িগ্রাম জেলার ফুলবাড়ী উপজেলায় অটো থেকে ছিটকে নারী মৃত্যু ১ সাপাহারে মার্কেন্টাইল ব্যাংকের এজেন্ট শাখার শুভ উদ্বোধন আলোর পথযাত্রী’ সহায়তায় সুস্থ হলেন ভ্যান চালক নাছের ধামইরহাটে দার্জিলিং জাতের কমলার চারা রোপন ধামইরহাটে জঙ্গিবাদ মৌলবাদ ও সাম্প্রদায়িকতার বিরুদ্ধে যুবলীগের বিক্ষোভ সমাবেশ বাংলা চ্যানেল পাড়ি দিয়েছেন একসঙ্গে ৪৩ জন সাঁতারু র‍্যাবের অভিযানে চকরিয়ায় বাস ডাকাতির ঘটনায় ৬ ডাকাত গ্রেফতার

পুঠিয়ার বানেশ্বরে আবাসিক হোটেল চয়েস থেকে পাঁচ যৌনকর্মীসহ আটক ৭

মোহাম্মদ আলী, রাজশাহী ব্যুরো
  • আপডেট সময় বুধবার ৭ অক্টোবর, ২০২০
  • ২৭৩ বার পঠিত

রাজশাহীর পুঠিয়া উপজেলার বানেশ্বরে অবস্থিত, আবাসিক হোটেল চয়েস থেকে পাঁচ যৌনকর্মীসহ ৭জনকে আটক করেছে পুঠিয়া থানা পুলিশ।
বুধবার বিকাল ৬টার সময় পুঠিয়া
থানা পুলিশ অভিযান পরিচালনা করে। পুঠিয়া থানার অফিসার ইনচার্জ রেজাউল
ইসলাম বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে আমি ও আমার ফোর্স উপজেলার বানেশ্বর ট্রাফিক মোড় সংলগ্নে, চারঘাট রোড, হোটেল চয়েসে অভিযান
পরিচালনা করি। এ সময় অসামাজিক কার্যকলাপের দায়সহ পরিচালনার অপরাধে, মোসাঃ
লতা খাতুন (৩০), মোসাঃ তানিয়া খাতুন (২৫), মোসাঃ জুঁই খাতুন (২৫), মোসাঃ
ববি খাতুন (৩০), শারমিন খাতুন (২৩), ম্যানেজার সুজন (৩০) ও স্টাফ সোহাগ
(২৮), গণকে নারী/পুরুষ পুলিশ সদস্য মাধ্যমে আটক করে। তাদের বিরুদ্ধে
পুঠিয়া থানায় একটি মামলা দায়ের করা হয়েছে। আদালতের মাধ্যমে তাদেরকে বৃহস্প্রতিবার জেল হাজতে পাঠানো হবে।
এলাকাবাসির অভিযোগ, বানেশ্বরের হাটকে কেন্দ্র করে পাঁচটি আবাসিক হোটেল ব্যবসা গড়ে উঠেছে। আবাসিক হোটেল ব্যবসার আড়ালে দেহ ব্যবসাসহ মাদক সেবন
আড্ডা চলে। পুলিশ-প্রসাশন মাঝে মধ্যে অভিযান পরিচালনা করলে কিছুদিন তাদের এ ব্যবসা বন্ধ থাকে। পরে তারা সুকৌশলে আবার তাদের এ ব্যবসা শুরু করে। এ
কারণে যে সব হোটেলে এধরনের ব্যবসা হয়। সে সব হোটেলগুলো বন্ধের দাবি জানিয়েছেন এলাকার সচেতণ মহল।

নিউজটি শেয়ার করুন


এ জাতীয় আরো খবর..