শনিবার, ০৫ ডিসেম্বর ২০২০, ১১:২০ পূর্বাহ্ন

শিরোনাম :
দিনাজপুরে এন্টি টেররিজম ইউনিট কর্তৃক জঙ্গী সংগঠন আল্লাহর দলের আঞ্চলিক প্রধান আটক পলাশবাড়ী পৌরসভা নির্বাচন সুষ্ঠু হবে-নির্বাচন কমিশনার বেগম কবিতা খানম খুলনা মহানগরীর শিরোমনি মধ্যপাড়া এলাকায় সেনা সদস্য আলামীন শেখের পুরুষাঙ্গ কেটে দিয়েছেন তার স্ত্রী কুড়িগ্রামের রাজার হাটে হিরোইন ও ইয়াবাসহ ২ যুবক আটক সুন্দর পৃথিবী ছেড়ে একদিন চলে যেতে হবে…” বিজয় সরকারের ৩৫তম মৃত্যুবার্ষিকী আজ (৪ ডিসেম্বর) পলাশবাড়ী প্রেসক্লাবের নব-নির্বাচিত কমিটির দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত গোবিন্দগঞ্জে চা দোকানীর গলাকাটা লাশ উদ্ধার মাদক কারবারিদের বাড়ির সামনে ছবি টাঙ্গিয়ে দেওয়া হবে ভোটারের মন জয় করতে যাদু কুড়িগ্রাম পৌর নির্বাচনে মেয়র পদপ্রার্থীদের মধ্যে যাচাই-বাছাইয়ে ৫জনের মনোনয়নপত্র বৈধ ঘোষণা কুড়িগ্রামের ফুলবাড়ী উপজেলায় ভ্রাম্যমান আদালতের নির্দেশে মাদক সেবনের অপরাধে জেল ও জরিমানা খুলনা মহানগরী সহ ও খুলনা জেলার নয়টি উপজেলায় একযোগে ১৬টি ভ্রাম্যমান আদালতের অভিযান শ্রদ্ধা ও ভালবাসায় সমাহিত হলেন জনপ্রিয় শিক্ষক ও রাজনৈতিক নেতা দেওয়ান হালিমুজ্জামান ধামইরহাটে সড়ক ও জনপদের কাছে জনগণের অসন্তোষ-ক্ষোভ প্রকাশ গুইমারায় আলোচিত স্বামী হত্যায় দায়ে স্ত্রীসহ ৫জনের মৃত্যুদণ্ড

খুলনার রুপসা উপজেলায় অঃপ্রাপ্ত পুলিশ সদস্যের বাড়িতে ডাকাতির ঘটনায় মামলা দায়ের

সহঃবার্তা সম্পাদক
  • আপডেট সময় শনিবার ৭ নভেম্বর, ২০২০
  • ৫০ বার পঠিত

খুলনার রূপসা উপজেলার তিলক মধ্যপাড়ায় অবসরপ্রাপ্ত পুলিশ সদস্য রুহুল আমীনের বাড়িতে ডাকাতি ঘটনায় ১১জনকে আসামী করে থানায় মামলা দায়ের হয়েছে। রুহুল আমীনের স্ত্রী মুক্তা খাতুন বাদী হয়ে ৩ নভেম্বর মামলাটি দায়ের করেন।

মামলার আসামীরা হলেন-তিলক গ্রামের আইয়ুব সেখের ছেলে জসিম সেখ (৩৫), হান্নান খানের ছেলে মোঃ সেকেন্দার খান (৩২), রুবেল খান (২৮) ও মিরাজুল খান (২২), তেলায়েতের ছেলে আব্দুল্লাহ (২৮), আইয়ব সেখের ছেলে এনামুল শেখ (২২), মোজাফফার গাজীর ছেলে নাইম গাজী (২০), সাত্তারের ছেলে তাইদুল (২২), ইন্তাজ শেখের ছেলে জাকির শেখ (২৫), জুহুর খা র ছেলে শাহিন খা (৩৫) ও মৃত: শাহাজাহান খানের ছেলে হান্নান খান (৫৫) ।

মামলার এজাহারে সূত্রে জানা যায়, গত ৩০ অক্টোবর সন্ধ্যে সাড়ে ছয়টায় আসামীরা বাড়িতে ঢুকে ধারালো অস্ত্রের মুখে অবসরপ্রাপ্ত পুলিশ সদস্য রুহুল আমীন গাজীর স্ত্রী মোছাঃ মুক্তা খাতুনকে (৪২) ধারালো অস্ত্র দিয়ে এলোপাতাড়ি কোপাতে থাকে এবং নাকের ওপর হকিস্টিক দিয়ে আঘাত করার সাথে সাথে নাক ফেটে রক্ত বের হতে থাকে। এসময় তার চিৎকার চেচামেচি শুনে তার ভাই মানিক (৩৫) এগিয়ে এসে বোন মুক্তা খাতুনকে বাঁচানোর চেষ্টা করে।

এসময় ৩নং আসামী রুবেল খান ধারালো দা দিয়ে মানিককে হত্যার উদ্দেশ্যে কোপ দিলে তার থুতনির নিচে কেটে রক্তাক্ত জখম হয়। এরপর মিরাজুল হাতুুড়ি দিয়ে মানিকের শরীরের বিভিন্ন স্থানে আঘাত করে এবং আব্দুল্লাহ হকিস্টিক দিয়ে মাথায় আঘাত করার ফলে মারাত্মক আহতাবস্থায় অজ্ঞান হয়ে পড়ে।

এরপর রুবেল ও মিরাজুল আলমারির ড্রয়ারের তালা ভেঙ্গে একলাখ আশি হাজার নগদ টাকা ও চার ভরি ওজনের স্বর্ণালংকার নিয়ে নেয়। এবং ২ নং আসামী সেকেন্দার খান মুক্তা খাতুনকে বিবস্ত্র করে শ্লীলতাহানি ঘটায়। এসময় তার চিৎকারে প্রতিবেশী মিলন সেখ, মোজাফফার, বায়েজিদ সহ প্রতিবেশিরা এগিয়ে এলে ডাকাতদল প্রকাশ্যে খুন জখমের হুমকি দিয়ে চলে যায়।

পরে আহত মুক্তা খাতুন ও মানিককে খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

নিউজটি শেয়ার করুন


এ জাতীয় আরো খবর..