মঙ্গলবার, ০১ ডিসেম্বর ২০২০, ০৭:৩৫ পূর্বাহ্ন

শিরোনাম :
পৌরসভা নির্বাচন ২০২০, মেয়র প্রার্থী হিসেবে ধানের শীষ প্রতিক পেলেন যারা ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে চাল আত্মসাতের অভিযোগ সাঘাটায় মুক্তিযোদ্ধা যাচাই-বাছাই অনুষ্ঠিত দূর্গাপুরে কৃষক লীগের উদ্যোগে প্রান্তিক কৃষকদের কৃষি বীজ বিতরণ কুড়িগ্রাম জেলার ফুলবাড়ী উপজেলায় ৪২ তম জাতীয় বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি সপ্তাহ ২০২০ পালিত কুড়িগ্রাম জেলার ফুলবাড়ী উপজেলায় অটো থেকে ছিটকে নারী মৃত্যু ১ সাপাহারে মার্কেন্টাইল ব্যাংকের এজেন্ট শাখার শুভ উদ্বোধন আলোর পথযাত্রী’ সহায়তায় সুস্থ হলেন ভ্যান চালক নাছের ধামইরহাটে দার্জিলিং জাতের কমলার চারা রোপন ধামইরহাটে জঙ্গিবাদ মৌলবাদ ও সাম্প্রদায়িকতার বিরুদ্ধে যুবলীগের বিক্ষোভ সমাবেশ বাংলা চ্যানেল পাড়ি দিয়েছেন একসঙ্গে ৪৩ জন সাঁতারু র‍্যাবের অভিযানে চকরিয়ায় বাস ডাকাতির ঘটনায় ৬ ডাকাত গ্রেফতার ধামইরহাটে অজ্ঞাত রোগে মাছে মড়ক, ৩০ লাখ টাকার ক্ষতিতে মৎস্যচাষী’র হাহাকার চকরিয়ায় হরিনের মাংস বিক্রির অভিযোগে ১ ব্যক্তির ৩ মাসের সাজা পুঠিয়ায় মাস্ক না পরায় সচেতনতার পাশাপাশি ভ্রাম্যমাণ আদালতের অর্থদন্ড

সাদুল্লাপুরে গাঁজা গডফাদার সাবেক ইউপি সদস্য জহুরুল আটক

আল কাদরি কিবরিয়া সবুজ, (গাইবান্ধা) প্রতিনিধিঃ
  • আপডেট সময় মঙ্গলবার ১০ নভেম্বর, ২০২০
  • ৫০ বার পঠিত


গাইবান্ধার সাদুল্লাপুরের গাঁজা গডফাদার হিসেবে খ্যাত ধাপেরহাটের হাসানপাড়া গ্রামের মৃত আব্বাস আলীর ছেলে সাবেক ইউপি সদস্য জহুরুল ইসলাম (৫২) কে আটক করেছে গাইবান্ধা জেলা ডিবি পুলিশ। ৯ নভেম্বর সোমবার দুপুরে জেলা ডিবি পুলিশের একটি চৌকস টিম নিজ বাড়ী থেকে তাকে আধা কেজি গাঁজাসহ আটক করে।

তাকে আটকের বিষয়ে ডিবি পুলিশের ইন্সপেক্টর গোফ্ফার আলী জানান, গত কয়েক দিনের দীর্ঘ অভিযানের অংশ হিসেবে আজ তাকে আধা কেজি গাঁজাসহ আটক করা হয়েছে।

গাইবান্ধা জেলা ডিবি ওসি মুজিবর রহমান জানান, ইন্সপেক্টর গোফ্ফার, রায়হান, নওশাদ আলীসহ ডিবি পুলিশের একট টিম আধা কেজি গাঁজাসহ জহুরুলকে আটক করেছে।

এলাকাবাসী জানান, জহুরুল এলাকায় গাঁজারু জহুরুল নামে পরিচিত। বহুবছর ধরে সে এলাকায় গাঁজার ব্যবসা চালিয়ে যাচ্ছে। এলাকায় তরুণ প্রজন্মের ছেলেদের সে গাঁজাসেবি বানিয়ে ফেলেছে। তাদের সংসারে অশান্তি ডেকে এনেছে, ছোট ছোট ছেলেদের দ্বারা লাম ছাম কিছু টাকা হাতে ধরিয়ে দিয়ে এবং মহিলা মানুষ দিয়ে ব্যবসা করে কোটি বনে গেছে। তার বাড়ি এখন বহুতল ভবনে পরিণত হয়েছে। স্থানীয় কিছু মিনি মাইস লোক ও আত্তীকরণের সুবাদ গড়িয়ে ধুমধাড়াক্কায় চলছে তার গাঁজার ব্যবসা। সচেতন ছেলেরা প্রতিবাদ করলে গাঁজা দিয়ে ধরিয়ে দেবে মর্মে হুমকি দিয়ে থাকে। স্থানীয়ভাবে লোকজনকে সমসাময়িক সামান্য পরিমান সাহায্য দিয়ে এবং তাদের প্রতিবাদের মুখ থুবড়ে দিয়ে ফাঁকা মাঠে চালিয়ে যাচ্ছে গাঁজার রাজত্ব। তার স্ত্রী এবং সে ডজন খানেক মামলার আসামি হওয়া সত্ত্বেও আইনের ফাঁক ফোঁকর দিয়ে বারবার বেরিয়ে এসে চালিয়ে যাচ্ছে তার গাঁজার ব্যবসা। তার আটকে এলাকায় চলছে উৎসবের আমেজ।

নিউজটি শেয়ার করুন


এ জাতীয় আরো খবর..