দীঘিনালায় ইউপি নির্বাচনে বাঁধা প্রদানে ২জনকে ৬মাসের স্বশ্রম কারাদণ্ড

আব্দুল্লাহ আল মামুন, পার্বত্যাঞ্চল প্রতিনিধি
আব্দুল্লাহ আল মামুন, পার্বত্যাঞ্চল প্রতিনিধি আব্দুল্লাহ আল মামুন, পার্বত্যাঞ্চল প্রতিনিধি
প্রকাশিত: ২:০০ অপরাহ্ন, ৩০ নভেম্বর ২০২১ | আপডেট: ৬:৩৭ পূর্বাহ্ন, ২৩ জানুয়ারী ২০২২

খাগড়াছড়ির দীঘিনালায় ইউপি নির্বাচনে বাঁধা প্রদানের অভিযোগে ২জনকে ৬মাসের স্বশ্রম কারাদণ্ড দেয়া হয়েছে। 

গত রবিবার(২৮ নভেম্বর) ভ্রাম্যমাণ আদালতে এ সাজা প্রদান করা হয়। 

মামলার এজাহার সূত্রে জানা যায়, রবিবার দীঘিনালার ৩ইউপি নির্বাচন চলাকালীন ১নং মেরুং ইউনিয়নে নির্বাচন কাজে বাঁধা প্রদানের অভিযোগে বড় মেরুং এর আব্দুল মান্নানের ছেলে বাবুল মিয়া(২৮) এবং কবাখালী ইউনিয়নের হাচিনসনপুর গ্রামের আবু তাহের এর ছেলে রফিক(৪২)কে ভ্রাম্যমাণ আদালতে ৬মাসের স্বশ্রম কারাদণ্ড প্রদান করা হয়েছে।

এছাড়া নির্বাচনী গাড়ি ভাংচুর করার অভিযোগে ৭জনের নামে মামলা করা হয়েছে।

কবাখালী ইউনিয়নে নির্বাচনী কাজে ব্যবহৃত গাড়ি ভাংচুরের অভিযোগে খাগড়াছড়ি সদর উপজেলার দক্ষিণ গঞ্জ পাড়ার ইউসুফ আলীর ছেলে শরীফ আহম্মেদ বাদী হয়ে ৫নং ওয়ার্ডের মোরগ মার্কার মেম্বার পদপ্রার্থী মো. হানিফ মিয়া(সোহাগ)কে প্রধান আসামি করে ৬জনের নাম উল্লেখে এবং  অজ্ঞাতনামা দেড় শতাধীক আসামি করে মামলা দায়ের  করে। 

মামলার আসামীরা হলেন, পূর্ব হাচিনসনপুর গ্রামের আলামিন এর ছেলে মো. মোজাহিদ রাব্বি(২০), জহির হোসেন এর ছেলে মো. রাজিব হোসেন(১৮), ছায়েদ আলীর ছেলে মো. নুরে আলম(২৪), 

চট্টগ্রামের রাঙ্গুনিয়া পৌরসভা বাসিন্দা, মৃত হাজী আব্দুল ওহাবের ছেলে আবু জাহেদ(৪০)। শফিকুল ইসলাম এর ছেলে মো. আরিফুল ইসলাম(২৪) এবং নজরুল ইসলামের ছেলে জামাল হোসেন(৪০)। 

মামলার এজাহারে মো. হানিফ মিয়া(সোহাগ) পালিয়ে গেলেও অপর আসামীদের আটক করে জেল হাজতে প্রেরণ করা হয়। 

দীঘিনালা থানার এসআই মিল্টন খন্দকার ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।